এইচবি এভিয়েশন’র সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড ও মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা প্রদান

এইচ বি এভিয়েশন এর ৭ম সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড সেরেমনি অনুষ্ঠিত এবং ৭ জন সম্মানিত বীর মুক্তিযোদ্বাদের সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে ২০২৩ সালে উক্ত ট্রেনিং ইন্সটিটিউট থেকে এয়ারটিকেটিং প্রফেশন এর উপর কোর্স সম্পন্ন করা ২৫০ শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হয় ও যারা ট্রেনিং গ্রহণ করে উদ্যোক্তা হয়েছেন, ও বিভিন্ন অবদান রেখেছেন তাদের বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে এইচবি এভিয়েশন এর ৩য় ব্রাঞ্চ সিলেট ব্রাঞ্চের শুভ উদ্ভোদন এর ঘোষনা প্রদান করা হয় সেই সাথে বৃহৎ আকারে এভিয়েশন সেক্টরের পাশাপাশি ট্যুরিজম সেক্টরেও আরো দক্ষ জনবল তৈরি করার লক্ষ্যে উক্ত প্রতিষ্ঠানটি তার পূর্বের নাম এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার পরিবর্তন করে এইচবি এভিয়েশন এন্ড ট্যুরিজম ইন্সটিটিউট করার ঘোষনা দিয়েছে।

এছাড়াও ৭ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সম্মানার্থে তাদেরকে সম্মাননা প্রদান করা হয়। মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত সকল শ্রোতাদের প্রতি তাদের মুল্যবান বক্তব্য প্রদান করেন। এইচ বি এভিয়েশন ৭ম বছর এ পদার্পণ করায়, এইচ বি এভিয়েশন এর ফাউন্ডার এন্ড চেয়ারম্যান ৭ জন বীর মুক্তিযোদ্বাদের উত্তরীয়, ফুলেল সংবর্ধনা ও এ্যাওয়ার্ড দিয়ে সম্মাননা প্রদান করেন, এবং এই বীরদের, তরুণদের অনুপ্রেরণার আলো হিসেবে আখ্যায়িত করেন।

অনুষ্ঠানে বেশ কিছু গণ মাধ্যম কর্মীর সামনে মূল কি নোট উপস্থাপন করেন, এইচ বি এভিয়েশন এর ফাউন্ডার এন্ড চেয়ারম্যান জনাব যাকি এস বারী, তিনি বলেন,” এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার গত ৬ বছর ধরে এভিয়েশন ও ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম সেক্টর এ উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনবল তৈরী করে আসছে। এইচ বি এভিয়েশন শুধুমাত্র ট্রেনিং ই প্রদান করছেনা, ট্রেনিং শেষে শিক্ষার্থীদের চাকরি বা ব্যবসার ক্ষেত্রেও পূর্নাঙ্গ সহযোগিতা করে আসছে। এছাড়াও এইচবি এভিয়েশন তাদের শিক্ষার্থীদেরকে উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তোলবার লক্ষ্যে দেশের ভিনিন্ন শীর্ষ ট্রাভেল ট্রেড প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তি করেছে যার মাধ্যমে এইচবি এভিয়েশন এর শিক্ষার্থীরা সেসব শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানের সাথে সরাসরি ব্যাবসায়ীক সম্পর্ক তৈরি করতে পারছে।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন সংসদ সদস্য এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার হারুনুর রশিদ। অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন সেইবার বাংলাদেশের কান্ট্রিহেড জনাব সাইফুল হক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব প্রীতম আহমেদ, দেশের শীর্ষস্থানীয় ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম প্রতিষ্ঠান এর প্রতিনিধিগন এবং বিভিন্ন জিডিএস ও এয়ারলাইনস এর কর্মকর্তা গণ। সকলেই এইচ বি এভিয়েশন এর তরুণ ও শিক্ষার্থীদের জন্য গ্রহণ করা বিভিন্ন ইতিবাচক পদক্ষেপ এর ভূয়সী প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার ২০১৮ সাল থেকে এয়ারটিকেটিং প্রফেশন এর উপর ট্রেনিং প্রদান করে আসছে। বর্তমানে ইন্সটিটিউট টির ঢাকা, চিটাগং এবং সিলেটে মোট ৩ টি শাখা রয়েছে। এইচ বি এভিয়েশন কারিগরি শিক্ষা বোর্ড অনুমোদিত ও আইএসও সার্টিফাইড ট্রেনিং ইন্সটিটিউট। এখন পর্যন্ত এই ট্রেনিং ইন্সটিটিউট থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার প্রায় ১ হাজার শিক্ষার্থী ট্রেনিং গ্রহণ করে দেশে বিদেশে চাকরি বা ব্যবসা করছে।

এইচবি এভিয়েশন’র সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড ও মুক্তিযোদ্ধা সম্মাননা প্রদান Read More »

ইচবি এভিয়েশনের সার্টিফিকেট অ্যাওয়ার্ড প্রদান​

এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের উদ্যোগে সপ্তম ‘এইচবি সার্টিফিকেট অ্যান্ড অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়েছে। গত শুক্রবার রাজধানীর বিয়াম মিলনায়তনে এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এছাড়াও ৭ জন বীর মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠানে ২০২৩ সালে এয়ারটিকেটিং প্রফেশনের উপর কোর্স সম্পন্ন করা ২৫০ শিক্ষার্থীকে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। যারা ট্রেনিং গ্রহণ করে উদ্যোক্তা হয়েছেন তাদেরকে সম্মাননা দেওয়া হয়।

 

অ্যাওয়ার্ড প্রদান অনুষ্ঠানে এইচবি এভিয়েশনের তৃতীয় ব্রাঞ্চ হিসেবে সিলেট শাখার উদ্বোধন করা হয়। একই সঙ্গে বৃহৎ আকারে এভিয়েশন সেক্টরে কাজের পাশাপাশি ট্যুরিজম সেক্টরে আরও দক্ষ জনবল তৈরি করার লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি তার আগের নাম ‘এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার পরিবর্তন’ করে ‘এইচবি এভিয়েশন অ্যান্ড ট্যুরিজম ইন্সটিটিউট’ করার ঘোষণা দিয়েছে।

 

এইচবি এভিয়েশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান যাকি এস বারী বলেন, গত ৬ বছর ধরে এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনবল তৈরি করছে। এইচবি এভিয়েশন শুধুমাত্র ট্রেনিংই প্রদান করছে না, ট্রেনিং শেষে শিক্ষার্থীদের চাকরি বা ব্যবসার ক্ষেত্রেও সহযোগিতা করে আসছে। তিনি বলেন, এইচবি এভিয়েশন তাদের শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ে তুলতে দেশের বিভিন্ন শীর্ষ ট্রাভেল ট্রেড প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করেছে। এর ফলে এইচবি এভিয়েশনের শিক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সরাসরি কাজ করতে পারছেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন সাবেক সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার হারুনুর রশিদ। অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সেইবার বাংলাদেশের কান্ট্রিহেড সাইফুল হক, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব প্রীতম আহমেদ ও দেশের শীর্ষস্থানীয় ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজম প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা।

প্রসঙ্গত, এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার ২০১৮ সাল থেকে এয়ারটিকেটিং প্রফেশনের উপর প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে শাখা রয়েছে। এ পর্যন্ত বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার প্রায় ১ হাজার শিক্ষার্থী ট্রেনিং গ্রহণ করেছে।

 
 

ইচবি এভিয়েশনের সার্টিফিকেট অ্যাওয়ার্ড প্রদান​ Read More »

এইচ বি এভিয়েশনের ৬ষ্ঠ সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড প্রদান

এইচ বি এভিয়েশনের ৬ষ্ঠ সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড সেরেমনি অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই সঙ্গে বাংলাদেশে প্রথম বারের মতো ট্রাভেল ট্রেড এ জব এন্ড ক্যারিয়ার ফেয়ার এর ঘোষণা প্রদান করা হয়। শুক্রবার (৩ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে ‘এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার’ এর ‘৬ষ্ঠ এইচ বি সার্টিফিকেট এন্ড এ্যাওয়ার্ড সেরেমনি’ অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে ২০২২ সালে উক্ত ট্রেনিং ইন্সটিটিউট থেকে এয়ারটিকেটিং প্রফেশন এর উপর কোর্স সম্পন্ন করা ২০০ শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

 

এছাড়া যারা ট্রেনিং গ্রহণ করে উদ্যক্তা হয়েছে তাদের ক্রেস্ট প্রদান এবং বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে স্টার এ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়।

এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে প্রথম বারের মতো ট্রাভেল ট্রেডে জব এন্ড ক্যারিয়ার ফেয়ার এর ঘোষণা দেয়া হয়। এই জব এন্ড ক্যারিয়ার ফেয়ার আগামী ১৯ ও ২০ মার্চ ২০২৩, ঢাকার হোটেল সোনারগাঁতে অনুষ্ঠিত হবে। যেখানে বিভিন্ন এয়ারলাইনস, হোটেল, ট্রাভেল এজেন্সি অংশগ্রহণ করবে। এই জব ফেয়ার এর আয়োজক ‘দি বাংলাদেশ মনিটর’ এবং এই ফেয়ার এর নলেজ পার্টনার এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার।

অনুষ্ঠানে বেশ কিছু গণমাধ্যম কর্মীর সামনে মূল কি নোট উপস্থাপন করেন, এইচ বি এভিয়েশন এর ফাউন্ডার এন্ড চেয়ারম্যান যাকি এস বারী।

তিনি বলেন, ‘এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার গত ৫ বছর ধরে এভিয়েশন ও ট্রাভেল এন্ড ট্যুরিজম সেক্টর এ উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে দক্ষ জনবল তৈরি করে আসছে। এইচ বি এভিয়েশন শুধুমাত্র ট্রেনিংই প্রদান করছেনা, ট্রেনিং শেষে শিক্ষার্থীদের চাকরি বা ব্যবসার ক্ষেত্রেও পূর্নাঙ্গ সহযোগিতা করে আসছে। আর বাংলাদেশে বিভিন্ন ট্রেড এর জব বা ক্যারিয়ার ফেয়ার হলেও, এভিয়েশন বা ট্রাভেল ট্রেড এ এখন পর্যন্ত কোনো জব বা ক্যারিয়ার ফেয়ার হয়নি। কিন্তু এই সেক্টরে যথেষ্ট দক্ষ কর্মীর প্রয়োজন আছে। তাই দি বাংলাদেশ মনিটর এর আয়োজন এর সাথে একাত্বতা প্রকাশ করে এই জব ফেয়ার এর নলেজ পার্টনার হিসেবে এইচ বি এভিয়েশন সকল ধরনের সহযোগিতা প্রদানের মাধ্যমে তরুণদের কর্মসংস্থা্নের সুযোগ করে দেবে। ‘

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বিভিন্ন জিডিএস ও এয়ারলাইনস এর কান্ট্রি ম্যানেজার ও কর্মকর্তাগণ। এছাড়াও এইচ বি এভিয়েশন এর ট্রেনারগণও বক্তব্য প্রদান করেন।

সকলেই এইচ বি এভিয়েশন এর তরুণ ও শিক্ষার্থীদের জন্য গ্রহণ করা বিভিন্ন ইতিবাচক পদক্ষেপ এর ভূয়সী প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য, এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার ২০১৮ সাল থেকে এয়ারটিকেটিং প্রফেশনের উপর ট্রেনিং প্রদান করে আসছে। বর্তমানে ইন্সটিটিউটটির ঢাকা ও চিটাগং এ দু’টি ব্রাঞ্চ রয়েছে। এইচ বি এভিয়েশন কারিগরি শিক্ষা বোর্ড অনুমোদিত ও আইএসও সার্টিফাইড ট্রেনিং ইন্সটিটিউট। এখন পর্যন্ত এই ট্রেনিং ইন্সটিটিউট থেকে বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলার প্রায় ১ হাজার শিক্ষার্থী ট্রেনিং গ্রহণ করে দেশে বিদেশে চাকরি বা ব্যবসা করছে।

এইচ বি এভিয়েশনের ৬ষ্ঠ সার্টিফিকেট এ্যাওয়ার্ড প্রদান Read More »

এইচবি এভিয়েশনের ‘ইনফরমেশন টেকনোলজি’ বিষয়ে সেমিনার

এইচবি এভিয়েশনের ‘ইনফরমেশন টেকনোলজি’ বিষয়ে সেমিনার

📌 গত ১৪ইমে ২০২২ ইং এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের উদ্যোগে “বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার” এ বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম আয়োজন করে “নেক্সট বিগ অপারচুনিটি ইন ইনফরমেশন টেকনোলজি” শীর্ষক সেমিনার।
তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পে স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক জব সেক্টরে কি ধরনের কাজের চাহিদা দিন দিন বাড়ছে, কীভাবে প্রস্তুতি নিলে ভবিষ্যৎ এ চাকরির বাজারে ঢুকতে সুবিধা হবে এবং সেই সঙ্গে কীভাবে নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে সেই বিষয়ে বিষদ আলোচনা করা হয় সেমিনারে।
আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল আগামী দিনের ৪টি নতুন সম্ভাবনা ওয়েব এপ্লিকেশন, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, মেটাভার্স ও এভিয়েশন টেকনলোজি।
সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভোথিয়েটার এর মহাপরিচালক মো. আব্দুর রাজ্জাক (অতিরিক্ত সচিব)। এছাড়াও আলচ্য বিষয়ে, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য প্রদান করেন, আমাজন ওয়েব সার্ভিসেস, ইউএসএ এর লিডার সল্যুশন আর্কিটেকচার মোহাম্মদ মাহদী উজ জামান, ব্রেইন স্টেশন-২৩ এর হেড অব স্ট্রেটেজিক বিজনেস ইউনিট মো. মিফতাহ উদ্দিন, রাইজ আপ ল্যাবস এর ফাউন্ডার অ্যান্ড সিইও এরশাদুল হক ও ব্রোটেক্স টেকনোলজিস লিমিটেড এর কো-ফাউন্ডার, ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিটিও নাহিদ হোসাইন, বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এর প্রেসিডেন্ট আরিফুল হাসান অপু এবং এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার এর ফাউন্ডার এন্ড চ্যায়ারমেন যাকি এস, বারী।
এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার এ প্রথমবারের মত আয়োজিত জিডিএস কম্পিটিশন সিজন ১ এর চ্যাম্পিয়ন “বি এম আশিকুর রহমান” এর হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথিগণ।
উল্লেখ্য তরুণদের এয়ারটিকেটিং এবং ট্রাভেল ট্যুরিজম সেক্টর এ ক্যারিয়ার গড়তে ট্রেনিং প্রদান করে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার। এছাড়াও তরুণ প্রজন্ম কে এভিয়েশন সেকটর এর প্রতি উৎসাহিত করতে বিভিন্ন সেমিনার এর আয়োজন ও করে থাকে এইচ বি এভিয়েশন
 

এইচবি এভিয়েশনের ‘ইনফরমেশন টেকনোলজি’ বিষয়ে সেমিনার Read More »

সফল প্রশিক্ষর্নার্থীদের সার্টিফিকেট দিলো এইচ বি এভিয়েশন

এয়ারটিকেটিং এর উপর কারিগরি শিক্ষা প্রদান করার জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড।

এই উপলক্ষে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম নিয়ে শুক্রবার (৭ জানুয়ারি ২০২২ ইং) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজিত অনুষ্ঠানে বেশ কিছু গণমাধ্যমের উপস্থিতিতে মূল কি-নোট উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা জনাব যাকি এস, বারী।

 

কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তিনি বলেন “এভিয়েশন সেক্টরের জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার প্রতি নিয়ত সঠিক ও সময় উপযোগী প্রশিক্ষনের মাধ্যমে তরুন জনগোষ্ঠীকে দক্ষ করে গড়ে তুলছে। আর এখন কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর অনুমোদন পাওয়ায় এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার থেকে শিক্ষার্থীগন ৬ মাসের সরকারি ডিপ্লোমা কোর্স করে এবং যারা এয়ারটিকেটিং এজেন্সির সত্বাধিকারী /কর্মী রয়েছেন, যাদের কোন সার্টিফিকেট নেই তারাও শর্ট আরপিএল কোর্স এর মাধ্যমে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর সার্টিফিকেট পেতে পারেন।

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেতার এর এডিশনাল ডিরেক্টর জনাব সাদাত জাহিদ, নাসা থেকে ট্রেনিং প্রাপ্ত সার্টিফাইড প্রথম বাংলাদেশী ও বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা জনাব আরিফুল হক অপু, জিডিএস সফটওয়্যার ট্রাভেলপোর্ট বাংলাদেশ, সেইবার বাংলাদেশ, এ্যামাডিউস বাংলাদেশ এর প্রধান কর্মকর্তা বৃন্দ, বিমান বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এর গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তিবর্গ ও ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষকগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।
উপস্থিত অতিথিগণ তাদের বক্তব্যে এইচ বি এভিয়েশন এর এমন কার্যক্রম কে সাধুবাদ জানান ও ভূয়সী প্রশংসা করেন।

উল্লেখ্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের শেষের দিকে, ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি থেকে সফল ভাবে ৩০টি ব্যাচ এর ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীগণ প্রশিক্ষন শেষে বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এবং ট্রাভেল এজেন্সিতে কর্মরত আছে।

উক্ত অনুষ্ঠানটিতে ২০২১ সালে সফল ভাবে কোর্স সম্পন্নকারী ৭০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট এবং ট্রেনিং নিয়ে উদ্যোক্তা হওয়া ২০ জন শিক্ষার্থীকে “স্টার স্টুডেন্ট এ্যাওয়ার্ড” প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠান শেষে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার এর প্রশিক্ষকরা গন-মাধ্যম কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন।

সফল প্রশিক্ষর্নার্থীদের সার্টিফিকেট দিলো এইচ বি এভিয়েশন Read More »

৭০ প্রশিক্ষণার্থী পেলেন এইচবি এভিয়েশনের সনদ

সম্প্রতি এয়ারটিকিটিংয়ের ওপর কারিগরি শিক্ষা দেওয়ার জন্য এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড।

এ উপলক্ষে ট্রেনিং সেন্টারের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম নিয়ে ৭ জানুয়ারি রাজধানীর একটি হোটেলে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

 

অনুষ্ঠানে মূল কি-নোট উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা যাকি এস বারী। তিনি বলেন, ‘এভিয়েশন সেক্টরের জন্য এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার প্রতিনিয়ত সঠিক ও সময়োপযোগী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তরুণ জনগোষ্ঠীকে কর্মক্ষম করে গড়ে তুলছে।’

তিনি বলেন, ‘কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অনুমোদন পাওয়ায় এইচবি এভিয়েশন থেকে শিক্ষার্থীরা ৬ মাসের সরকারি ডিপ্লোমা কোর্স করতে পারবেন। যারা এয়ারটিকিটিং এজেন্সির মালিক বা কর্মী আছেন, যাদের কোনো সনদ নেই; তারাও শর্ট আরপিএল কোর্সের মাধ্যমে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সনদ পেতে পারেন।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেতারের অ্যাডিশনাল ডিরেক্টর সাদাত জাহিদ, নাসার ট্রেনিংপ্রাপ্ত প্রথম বাংলাদেশি ও বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা আরিফুল হক অপু।

এসময় জিডিএস সফটওয়্যার ট্রাভেলপোর্ট বাংলাদেশ, সেইবার বাংলাদেশ, অ্যামাডিউস বাংলাদেশের প্রধান কর্মকর্তারা, বিমান বাংলাদেশসহ বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের ব্যক্তিবর্গ ও ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

অতিথিরা তাদের বক্তব্যে এইচবি এভিয়েশনের এমন কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানান এবং প্রশংসা করেন।

আয়োজকরা জানান, এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের শেষদিকে। এ প্রতিষ্ঠান থেকে ৩০টি ব্যাচের ৫ শতাধিক শিক্ষার্থী প্রশিক্ষণ শেষে বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এবং ট্রাভেল এজেন্সিতে কর্মরত।

অনুষ্ঠানে ২০২১ সালে সফলভাবে কোর্স সম্পন্নকারী ৭০ শিক্ষার্থীর মাঝে সনদ এবং ট্রেনিং নিয়ে উদ্যোক্তা হওয়া ২০ শিক্ষার্থীকে ‘স্টার স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হয়।

অনুষ্ঠান শেষে এইচবি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষকরা গণমাধ্যমকর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন।

৭০ প্রশিক্ষণার্থী পেলেন এইচবি এভিয়েশনের সনদ Read More »

এইচবি এভিয়েশনের সনদ পেলেন ৭০ প্রশিক্ষণার্থী

Credit goes to: https://news71online.com/

Copyright © News71online.Com

য়ারটিকেটিং এর উপর কারিগরি শিক্ষা প্রদান করার জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। এই উপলক্ষে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের পক্ষ থেকে প্রতিষ্ঠানটির কার্যক্রম নিয়ে শুক্রবার (৭ জানুয়ারি ২০২২ ইং) রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজিত অনুষ্ঠানে বেশ কিছু গণমাধ্যমের উপস্থিতিতে মূল কি-নোট উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা জনাব যাকি এস, বারী। কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে তিনি বলেন “এভিয়েশন সেক্টরের জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার প্রতি নিয়ত সঠিক ও সময় উপযোগী প্রশিক্ষনের মাধ্যমে তরুন জনগোষ্ঠীকে দক্ষ করে গড়ে তুলছে। আর এখন কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর অনুমোদন পাওয়ায় এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার থেকে শিক্ষার্থীগন ৬ মাসের সরকারি ডিপ্লোমা কোর্স করে এবং যারা এয়ারটিকেটিং এজেন্সির সত্বাধিকারী /কর্মী রয়েছেন, যাদের কোন সার্টিফিকেট নেই তারাও শর্ট আরপিএল কোর্স এর মাধ্যমে কারিগরি শিক্ষা বোর্ড এর সার্টিফিকেট পেতে পারেন। উক্ত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেতার এর এডিশনাল ডিরেক্টর জনাব সাদাত জাহিদ, নাসা থেকে ট্রেনিং প্রাপ্ত সার্টিফাইড প্রথম বাংলাদেশী ও বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরাম এর প্রতিষ্ঠাতা জনাব আরিফুল হক অপু, জিডিএস সফটওয়্যার ট্রাভেলপোর্ট বাংলাদেশ, সেইবার বাংলাদেশ, এ্যামাডিউস বাংলাদেশ এর প্রধান কর্মকর্তা বৃন্দ, বিমান বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এর গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তিবর্গ ও ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষকগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত অতিথিগণ তাদের বক্তব্যে এইচ বি এভিয়েশন এর এমন কার্যক্রম কে সাধুবাদ জানান ও ভূয়সী প্রশংসা করেন। উল্লেখ্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের শেষের দিকে, ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি থেকে সফল ভাবে ৩০টি ব্যাচ এর ৫ শতাধিক শিক্ষার্থীগণ প্রশিক্ষন শেষে বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এবং ট্রাভেল এজেন্সিতে কর্মরত আছে। উক্ত অনুষ্ঠানটিতে ২০২১ সালে সফল ভাবে কোর্স সম্পন্নকারী ৭০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট এবং ট্রেনিং নিয়ে উদ্যোক্তা হওয়া ২০ জন শিক্ষার্থীকে “স্টার স্টুডেন্ট এ্যাওয়ার্ড” প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠান শেষে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার এর প্রশিক্ষকরা গন-মাধ্যম কর্মীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর প্রদান করেন।

Credit goes to: https://news71online.com/

Copyright © News71online.Com

এইচবি এভিয়েশনের সনদ পেলেন ৭০ প্রশিক্ষণার্থী Read More »

“ট্রেনিং পাওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট প্রদান” – সাম্প্রতিক দেশকাল

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অনুমোদন ও ট্রেনিং পাওয়া সফল শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট ও ক্রেস্ট প্রদান করেছে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার। শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) রাতে এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারের পক্ষ থেকে রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।

এয়ারটিকেটিং এর উপর কারিগরি শিক্ষা প্রদান করবার জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টারকে অনুমোদন দিয়েছে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড। 

উক্ত অনুষ্ঠানটিতে ২০২১ সালে সফল ভাবে কোর্স সমপন্নকারী ৭০ জন শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট এবং ট্রেনিং নিয়ে উদ্যক্তা হওয়া ২০ জন শিক্ষার্থীকে ‘স্টার স্টুডেন্ট এ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়।  

আয়োজিত অনুষ্ঠানে মূল কি-নোট উপস্থাপন করেন প্রতিষ্ঠানটির প্রতিষ্ঠাতা জনাব যাকি এস. বারী।

তিনি বলেন, ‘এভিয়েশন সেক্টরের জন্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার প্রতি নিয়ত সঠিক ও সময় উপযোগী প্রশিক্ষনের মাধ্যমে তরুন জন সংখ্যাকে কর্মক্ষম করে গড়ে তুলছে। আর এখন কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের অনুমোদন পাওয়ায় এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার থেকে  শিক্ষার্থীগন ৬ মাসের সরকারি ডিপ্লোমা কোর্স করে এবং যারা এয়ারটিকেটিং এজেন্সির সত্বাধিকারী/কর্মী রয়েছেন, যাদের কোনো সার্টিফিকেট নেই তারাও  শর্ট আরপিএল কোর্সের মাধ্যমে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সার্টিফিকেট পেতে পারেন।’ 

 

উক্ত অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ বেতারের এডিশনাল ডিরেক্টর জনাব সাদাত জাহিদ, নাসা থেকে ট্রেনিং প্রাপ্ত সার্টিফাইড প্রথম বাংলাদেশী ও বাংলাদেশ ইনোভেশন ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা জনাব আরিফুল হক অপু,  জিডিএস সফটওয়্যার ট্রাভেলপোর্ট বাংলাদেশ, সেইবার বাংলাদেশ, এ্যামাডিউস বাংলাদেশের প্রধান কর্মকর্তা বৃন্দ, বিমান বাংলাদেশ সহ বিভিন্ন এয়ারলাইন্সের গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তিবর্গ ও ট্রেনিং সেন্টারের প্রশিক্ষকগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য এইচ বি এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার যাত্রা শুরু করে ২০১৭ সালের শেষের দিকে। ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি থেকে সফল ভাবে ৩০টি ব্যাচের ৫০০ শিক্ষার্থী প্রশিক্ষন শেষে বিভিন্ন এয়ারলাইন্স এবং ট্রাভেল এজেন্সিতে কর্মরত আছেন।  

“ট্রেনিং পাওয়া শিক্ষার্থীদের মাঝে সার্টিফিকেট প্রদান” – সাম্প্রতিক দেশকাল Read More »

“Bangladesh Tourism Industry: Prospects and Opportunities”

“Bangladesh Tourism Industry: Prospects and Opportunities”

The tourism industry of Bangladesh is not too long. In the year 1972, Bangladesh tourism industry officially started with the establishment of Bangladesh Parjatan Corporation in the hands of Bangabandhu Sheikh Mujibur Rahman. Where Grand Tour began in England in 1670, Thomas Cook arranged the first package tour in 1841, traveling from Leicester to loughborough by traveling with 570 tourists. For this reason, Thomas Cook is known as “The Father of Package Tour” in the world of Travel Agency. The word ‘tourist’ was first applied in 1772 and the use of tourism was used in 1811. In comparison to this, I can say Bangladesh tourism industry like new born baby. People of our country understand tourism as a hotel. Someone thinks tourism means roam around nothing else. Apart from hotels and sightseeing, there are many things that tourism is related to; many people do not want to believe these simple words.

According to the World Tourism Organization- “Tourism is a collection of activities, services and industries which deliver a travel experience comprising transportation, accommodation, eating and drinking establishments, retail shops, entertainment businesses and other hospitality services provided for individuals or groups traveling away from home” .In my language “Tourism is sum of all activities that arising out from travel and stay of tourists.”And for the tourists to perform the above mentioned activities, all the activities that are to be coordinated include tourism. Simply put, tourism is the sum of all the jobs that arise when a tourist travels or lives in some other place. One of the five pillars of tourism is Transportations and Communication, Accommodations, Food and Beverage, Attractions, and Entertainment. These pillars above are associated with 109 sectors. This is why tourism is called the industry of Industry and Art.

Current world, many of countries’ economy is tourism oriented. Example for UAE, India, Malaysia, Thailand, Nepal, Bhutan, Srilanka, Maldives, Laos, and most part of Europe and American continent. Bangladesh is raising country for travel and tourism sector. According to the World Travel and Tourism Council, more than 100 million tourists are traveling from one country to other countries. By 2020, its number will exceed 160 million. The tourism industry of Bangladesh is progressing day by day. If proper measures are taken for the development and promotion of tourism industry in Bangladesh, this industry will be transformed through the main driving force of Bangladesh’s economy and tourism. According to the World Travel and Tourism Council, in 2014, direct contribution of tourism and travel to Bangladesh’s economy was 296.6 billion and it got direct employment at 0.903 million. Screening is an industry where everyone gets financial independence. According to Indian tourism magazine, in some countries, when a tourist travels, he creates financial benefit for 30 people indirectly.

Tourism in Bangladesh is very unique and diversified from other parts of world. All of the material needed to attract the tourists that all are exists in our country, just need to present them properly to tourists. UNESCO has declared three attractions in Bangladesh as a world heritage site; the world’s largest integrated mangrove forest – Sundarbans, The world oldest Budhists Vhira; Paharpur, and The art of finest Archeology; Sixty dome mosque. Mongal Sovajatra has declared as a world intangible world heritage by UNESCO. There is also the longest continuous natural sandy beach in the world – Cox’s Bazar, the coral island in the heart of the Bay of Bengal – St. Martin’s Island, The Largest Hilly Island-Mahesakhali Island, Natural diversified Island-  Sonadia Island, The Second Mangrove forest of Bangladesh-Nijhum Island. 

The beauty of the tea gardens of Sylhet makes special attention for the tourists. It is not possible to express the beauty of Nilgiri, Nilchari Hill, Waterfalls and Sangu River in Bandarbans. The Sajek Valley in Rangamati is a place where it will feel like flying in the clouds. Rangamati is also known by the name of “The City of Lake”. The rural environment of Bangladesh and the simple-minded people will be encouraged to visit villages anytime. Cultural programs of our country, such as Pala-e-Parvan, Pahla Baishakh, Pahla Falgun, Kites festival, Boisabi festival will be forced to bring foreign tourists to Bangladesh. 

The government of Bangladesh is taking a number of steps to develop and promote tourism industry. According to the Tourist Reservation Area Act-2010, 35 thousand acres of land has been declared as a “Tourism Conservation Area”. Islands – Saint Martin Island, Maheshkhali Island, Sonadia Island, Nijhum Island, Sundarbans, have been declared as “Tourism Protected areas”. In the suburang of Teknaf, 1165 acres are available for foreign tourists throughout the “work in Exclusive Tourist Zone”. Overall assessment and survey record is giving us positive sign for Bangladesh Tourism: Prospect and Possibility.

Md. Shaifullar Rabbi

BBA & MBA, Major in Tourism and Hospitality Management, University of Dhaka Coordinator & Lecturer, Department of tourism & Hospitality Management, DIIT-NU Assessor- Ticketing & Reservation, Bangladesh Technical Education Board Senior Trainer- HB Aviation Training Center

“Bangladesh Tourism Industry: Prospects and Opportunities” Read More »